ব্যর্থতা স্বীকার করার শক্ত মন-মানসিকতা গড়ে তুলুন

সীমাহীন ব্যস্ততা, কোলাহলে পরিপূর্ণ আধুনিক জীবনযাত্রায় মানসিক চাপ এখন জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতিদিন ঘরে-বাইরে ছোট-বড় বিভিন্ন ধরনের মানসিক চাপের মধ্য দিয়ে আমাদেরকে যেতে হয়। জীবনের এই নানা দিক উপেক্ষা করে নিজেকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। সবাই তাঁর নিজ নিজ দিক হতে সমান। তাই নিজেকে কারো তুলনায় ছোট ভেবে মনে মনে কষ্ট পাবেন না বা নিজেকে গুটিয়ে রাখবেন না। একটাই জীবন, মন খুলে বাঁচুন।

 

ব্যর্থতা বাস্তব জীবনেরই একটি অংশ। ব্যর্থতাকে মেনে নিয়েই সামনের দিকে এগিয়ে চলতে হবে। আপনি যদি একজন সফল উদ্যোক্তা হতে চান, তবে অবশ্যই আপনাকে বাস্তবতা মেনেই চলতে হবে। কাজে ব্যর্থতাই আপনাকে সামনের দিকে এগিয়ে চলতে অনুপ্রাণিত করবে।

 

অনেকের জীবনেই ভয় তাড়া করে বেড়ায় ছায়ার মতো। আপনি যদি এই ভয়গুলো কাগজে-কলমে লিপিবদ্ধ করে ফেলেন, তাহলে এগুলোকে যথাযথভাবে শনাক্ত করতে পারবেন। পারবেন এগুলোর উৎস খুঁজে বের করতে। একবার যথাযথভাবে লিপিবদ্ধ করতে পারলে এগুলোর আকৃতি হবে লিখিত অক্ষরের সমান। তখন আপনি এ ভয়গুলোর বিরুদ্ধে সহজে পদক্ষেপ ও ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন। নিজের ওপর আত্মবিশ্বাস বজায় রাখুন। আপনি যা করছেন যে যাই ভাবুক না কেন আপনার পক্ষ থেকে আপনার সবটা দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার মানসিকতা বজায় রাখুন।

 

জেনে নিন মানসিকভাবে শক্ত থাকার ৭টি কার্যকর উপায়

 

১। নিজের দুর্বলতাগুলো খুঁজে বের করুন

 

আপনার যদি আত্মবিশ্বাসের অভাব থেকে থাকে, তবে কখনোই আপনি লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন না। বরং আপনার দুর্বলতা এবং অক্ষমতাগুলো খুঁজে বের করুন। গভীরভাবে চিন্তা করুন কোন দিকগুলো আপনাকে ভাবায় বা কোন দিকগুলো নিয়ে আপনি সঠিকভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। দুর্বলতাগুলোকে নির্ধারণ করে তা মোকাবেলার চেষ্টা করুন। কৌশল খুঁজে বের করুন এবং পুনরায় তা বাস্তবায়নে অগ্রসর হন।

 

 

মনে রাখবেন,  

“The weak fall, but the strong will remain and never go under!” – Anne Frank

 

২। ইতিবাচক মানুষের সাথে চলুন

 

ব্যাক্তিগত জীবনে এমন অনেক মানুষ পাবেন যারা আপনাকে প্রতিনিয়ত ভাবতে বাধ্য করবে যে, আপনার দ্বারা কোন কাজ সম্ভব নয় বা আপনি হয়ত এই কাজের যোগ্য নন। ইতিবাচক মনোভাবাপন্ন মানুষের সান্নিধ্যে থাকুন। তাতে করে আপনার মনে ইতিবাচকতার ছায়া পড়বে। আর নেতিবাচক মানুষের সান্নিধ্যে নেতিবাচকতা ভর করবে আপনার উপর। তাই বেছে নিন আপনার ইতিবাচক বন্ধুকে।

 

“Surround yourself with really good people. I think that’s an important thing. Because the people you surround yourself are a reflection of you”  – Aaron Rodgers

 

৩। নিজেকে সময় দিন

 

বর্তমান কর্মব্যস্ততার  জন্য আমরা অনেকেই নিজের বা পরিবারের জন্য সময় বের করতে পারি না। জীবনে কাজের ব্যস্ততা আসবে, এটা বাস্তবতা। কিন্তু নিজের জীবনের জন্য অন্তত ১৫ মিনিট সময় হাতে রাখুন।

 

 

“Knowing yourself is the beginning of all wisdom” – Aristotle

 

আরও পড়ুনঃ নিজেকে সব সময় অনুপ্রাণিত রাখুন ১০টি উপায়ে

 

৪। জীবন থেকে একটি খারাপ অভ্যাস ঝেড়ে ফেলুন

 

মানুষ অভ্যাসের দাস। ভালো খারাপ উভয় মিলেই আমাদের জীবন। তবে অবশ্যই আপনাকে ভালো খারাপের মধ্যকার পার্থক্যটি বুঝতে হবে। আপনি যদি একটু সচেতন হন তবেই বুঝতে পারবেন কোন কাজটি আপনার জন্য ভাল আর কোনটি মন্দ। নিজের কিছু বদ অভ্যাস খুঁজে বের করুন এবং প্রতিজ্ঞা করুন প্রতিদিন অন্তত একটি করে খারাপ অভ্যাস দূর করার।

 

“Anything you want to change, you can.” – Jeffrey R. Holland

 

৫। নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন

 

প্রতিনিয়ত নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন। জীবনের প্রতিটি কাজ খুব গুরুত্ব সহকারে করবেন। নিজেকে প্রমাণ করে দেখিয়ে দিন যে আপনিও পারেন,আপনার মাঝেও কিছু করার মতো অভিজ্ঞতা বা সাহস রয়েছে। আপনিও পারেন জীবনের কঠিন সময়কে উপেক্ষা করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে।

 

“I like to challenge myself. I like to learn – so I like to try new things and try to keep growing” – David Schwimmer

 

 

৬। নিজের ছোটখাটো সাফল্যকে উপভোগ করতে শিখুন

 

সফলতা মানে কি শুধুই টাকা উপার্জন? মোটেও না।  আমেরিকার বিখ্যাত অভিনেতা, কমেডিয়ান, নৃত্যশিল্পী, সংগীতশিল্পী এবং গীতিকার এডি ক্যান্টর বলেন, ‘রাতারাতি সফল হতেও কমপক্ষে ২০ বছর সময় লাগে।’ কিন্তু খুব কম মানুষই জীবনে সফলতার মুখ দেখতে পান। তাই সেই সফলতাগুলোকে প্রাধান্য দিতে  শিখুন। ছোটখাটো সাফল্যে নিজেকে এমন কিছু উপহার করুন যা আপনার কাছে চরম আকাঙ্ক্ষিত।

 

৭। কখনও হার মানবেন না

 

আমরা কেউই হার মানা পছন্দ করি না। কিন্তু হেরে যাওয়া আর বিজয়ীর মধ্যকার পার্থক্য হল, যারা বিজয়ী তারা তাদের ব্যর্থতাকে সহজেই গ্রহণ করতে জানেন। যার ফলে তারা কোন কাজকেই ছোট করে দেখেন না। কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে সফলতা অর্জন করেন। তাই কখনও হার মানবেন না, নিজের জন্য কাজ করুন, অবশ্যই সফলতা খুঁজে পাবেন।

 

“Failure will never overtake me if my determination to succeed is strong enough.” – Og Mandino

 

মনে রাখবেন ,there’s always a wayব্যর্থতা মানে শেষ নয়, এটাই শুরু। নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হিসেবে গড়ে তুলতে চান কি না, তা নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন। যদি চান, তবে বদলে ফেলুন নিজেকে। নতুন করে খুঁজে নিন আপনাকে।

 

“Don’t quit. Suffer now and live the rest of your life as a champion.”  -Muhammad Ali

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *